Monday , October 21 2019
Breaking News
Home / হাদীস / নারীর চেহারার পর্দার বিধান
নারীর পর্দার বিধান

নারীর চেহারার পর্দার বিধান

নারীর মুগ্ধ করা সৌন্দর্যের মধ্যে তার চেহারাই অগ্রগন্য। বর্তমানে অনেকের কাছে মুখ ঢেকে পর্দা করার বিষয়ে দ্বিমত দেখা যায়। তাই প্রত্যেকের মুখ ঢাকার বিষয়টা ক্লিয়ার থাকা উচিত। যারা বলেন, পরপুরুষের সামনে মেয়েরা তাদের চেহারা খোলা রাখতে পারবে! তাদের জন্য:

🌺এ ব্যাপারে দলিলসমূহ কুরআন-সুন্নাহর আলোকে🌺

মুমিনদেরকে বলুন, তারা যেন তাদের দৃষ্টি নত রাখে এবং তাদের যৌনাঙ্গর হেফাযত করে। এতে তাদের জন্য খুব পবিত্রতা আছে। নিশ্চয় তারা যা করে আল্লাহ তা অবহিত আছেন।”(সূরা আন-নূর:৩০)
( নারীরা তাদের চেহারা পর্দামুক্ত রাখার অর্থই হল তারা যেন পুরুষদেরকে তাদেরকে দেখার প্রতি আমন্ত্রণ জানাচ্ছে।)

“হে নবী! আপনি আপনার পত্নীগণকে ও কন্যাগণকে এবং মুমিনদের স্ত্রীগণকে বলুন, তারা যেন তাদের চাদরের কিয়দংশ নিজেদের উপর টেনে নেয়। এতে তাদেরকে চেনা সহজ হবে। ফলে তাদেরকে উত্যক্ত করা হবে না।আল্লাহ ক্ষমাশীল পরম দয়ালু। (সুরাহ আহযাব : ৫৯ )”
.
“হযরত ইবনে আব্বাস (রা.) এই আয়াতের ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বলেন “আল্লাহ তাআলা মুমিন নারীদেরকে চাদর দ্বারা মস্তক ও চেহারা আবৃত করার নির্দেশ দিয়েছেন ” । (তফসীরে ইবনে কাসীর ৩/২৭৪)
.
“হযরত আয়েশা রা. ইফ্কের দীর্ঘ হাদীসে বলেছেন-‘আমি আমার স্থানে বসে ছিলাম। একসময় আমি ঘুমিয়ে পড়ি। সফওয়ান ইবনে মুয়াত্তাল আসসুলামী ছিল বাহিনীর পিছনে। সে যখন এখানে পৌঁছল তখন একজন ঘুমন্ত মানুষের আকৃতি দেখতে পেল। এরপর সে আমার নিকট এলে আমাকে চিনে ফেলল। কারণ পর্দা বিধান অবতীর্ণ হওয়ার আগে সে আমাকে দেখেছিল। তখন সে ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন বলে ওঠে, যার দরুণ আমি ঘুম থেকে জেগে উঠি এবং ওড়না দিয়ে নিজেকে আবৃত করে ফেলি। অন্য রেওয়ায়েতে আছে, ‘আমি ওড়না দিয়ে আমার চেহারা ঢেকে ফেলি।’ সহীহ বুখারী ৫/৩২০; সহীহ মুসলিম, হাদীস : ২৭৭০; জামে তিরমিযী, হাদীস : ৩১৭৯”

-উম্মুল মুমিনীন আয়েশা রা. আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সাথে তাঁর হজ্বের বিবরণে বলেছেন, ‘ইহরামের কারণে তারা নেকাব খোলা রাখতেন, কিন্তু যখন পুরুষেরা নিকট দিয়ে অতিক্রম করত তখন তারা মুখমন্ডল আবৃত করে ফেলতেন। তারা চলে যাওয়ার পর নেকাব তুলে ফেলতেন।’ -মুসনাদে আহমদ ৬/৩০; সুনানে আবু দাউদ, হাদীস : ১৮৩৩; সুনানে ইবনে মাজাহ হাদীস : ১৭৫৭।”

-“আল্লামা ইবনে তাইমিয়া রাহ. বলেন-‘সঠিকতর সিদ্ধান্ত এই যে, নারীর জন্য পরপুরুষের সামনে দুই হাত, দুই পা ও মুখমন্ডল খোলা রাখার অবকাশ নেই।’
-মাজমুউল ফাতাওয়া ২২/১১৪

-ইবনুল কাইয়িম রাহ. বলেন, ‘নারী নামায আদায়ের সময় দুই হাত ও মুখমন্ডল খোলা রাখতে পারেন, কিন্তু এভাবে বাজারে ও লোকের সমাগমস্থলে যাওয়ার অবকাশ নেই।’
–ই’লামুল মুয়াক্কিয়ীন ২/৪৭
.
.
শায়খ ইবনে বায রাহ., শায়খ ইবনে উছাইমীন ও শায়খ ইবনে জিবরীনও একই ফতোয়া দিয়েছেন। দেখুন : রিসালাতুন ফিলহিজাবি ওয়াসসুফূর, পৃ.১৯; ফাতাওয়া উলামাইল বালাদিল হারাম পৃ. ১১৬৯
.
.
এর পরেও কি আমরা বলব মুখ খোলা রাখলেও হবে? আল্লাহ ই সর্বাধিক জ্ঞানী |
মানুষের যে কোন কাজ আল্লাহ কে খুশী করার জন্য হওয়া বাঞ্ছনীয়। কে কি ভাবল, কে কি বলল সেটা দেখার বিষয় না; কারণ প্রতিদান পাবো তো রবের কাছ থেকেই।

About moktokotha

Check Also

বৈধ ভালবাসা

ইসলামের দৃষ্টিতে বৈধ ভালবাসা আর অবৈধ ভালবাসা

ইসলামের দৃষ্টিতে বৈধ ভালবাসা আর অবৈধ ভালবাসা চারটি অক্ষরের সমন্বয় খুব ছোট একটি শব্দ ভালবাসা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *